সংক্রমিত হতেই শুরু শুকনো কাশি, নিভৃতবাসে থেকেও কী ভাবে যত্ন নেবেন নিজের

করোনায় সংক্রমিত হলে শুকনো কাশি থেকে যাচ্ছে দীর্ঘ দিন। তার সঙ্গী আবার গলায় ব্যথা, জ্বালা। এমন কাশি বেশিক্ষণ চললে মুখের ভিতরটাও শুকনো লাগে। খাবার গিলতে অসুবিধা হয়। এ দিকে, এই কাশি সারতেও সময় নেয় অনেক বেশি। চিকিৎসকের পরামর্শ মতো ওষুধ তো খেতে হবেই। তার সঙ্গে কয়েকটি ঘরোয়া টোটকাও জেনে রাখা যায়। যাতে শুকনো কাশির কষ্টের হাত থেকে কিছুটা অন্তত মুক্তি পাওয়া যেতে পারে।

মধু

গলায় ব্যথা হোক বা খুসখুস করুক, মধু খানিকটা আরাম দেবেই। এতে ব্যক্টিরিয়া এবং ফাঙ্গাসের সঙ্গে লড়াই করার ক্ষমতা রয়েছে। আর রয়েছে অনেক অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট। গরম জলে দু’চামচ মধু ফেলে খেতে হবে রোজ, দু’বার করে। তাতে অনেকটাই আরাম পাবে গলা।
আদা
অনেক অসুখ সারাতেই কাজ করে ‌আদা। বিশেষ করে কোনও ধরনের সংক্রামক রোগের ক্ষেত্রে খুবই কার্যকর। কাশি না কমলে বাড়িতেই আদা দিয়ে চা করে খাওয়া যায় দিনে একাধিক বার। গলা আরাম পাবে। অন্য খাবার খাওয়ার সময়ে সঙ্গে একটু আদা দেওয়া চা রাখা যায়। তাতে খাবার গিলতে সুবিধা হয়।

নুন-জল

গরম জলে নুন ফেলে মাঝেমাঝেই গার্গল করা যেতে পারে। নুন জীবাণু তাড়াতে সাহাষ্য করে। সংক্রমণের কারণে শরীরে যে জীবাণু ঢুকেছে, তার সঙ্গে লড়তে পারে নুন। নুন-জলে গার্গল করলে, সঙ্গে সঙ্গেই যে কমে যাবে কাশি, এমন নয়। কিন্তু দু’-তিন দিন টানা করলে গলা অনেকটাই ভাল হয়ে উঠবে।

শেয়ার করুন