যেসব পণ্যের দাম বাড়বে

আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) দুপুর ৩টায় জাতীয় সংসদ অধিবেশনে তিনি এই বাজেট পেশ করেন। বাজেটে যেসব পণ্যের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে সেগুলো হলো- আমদানিকৃত মোবাইল, মদ-বিয়ার, সুগন্ধি, সিগারেট, থিম পার্কের রাইড, বিদেশি সবজি, প্রক্রিয়াজাত মাংস, গাড়ির সুরক্ষা কাঁচ।

এছাড়া- লবণ, যানবাহন নিরাপদ রাখার তালাজাতীয় পণ্যের, পুনর্ব্যবহারযোগ্য লুব বেস অয়েল, পুনর্ব্যবহারযোগ্য লুব্রিকেন্ট অয়েল, নাট-স্ক্রু (তারকাটা জাতীয় পণ্য), প্যারাফিন, মিনারেল অয়েল, সোডিয়াম সালফেট, আমদানিকৃত রড ও অ্যাঙ্গেল, ধান ও গম ভাঙ্গানোর মেশিন।

মোবাইল ফোন: প্রস্তাবিত বাজেটে দেশে মোবাইল ফোন উৎপাদনকে উৎসাহিত করতে আমদানিকৃত মোবাইলের ওপর শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২৫ করা হয়েছে।  তাই যেসব ফোন দেশে উৎপাদন হয় না, সেসবের দাম বাড়বে।  এ তালিকায় আইফোন ও স্যামসাংয়ের প্রিমিয়াম ফোন রয়েছে।

মদ-বিয়ার: এ জাতীয় পণ্য আমদানিতে বাজেটে ২০ শতাংশ অগ্রিম আয়কর আরোপ করা হয়েছে, তাই মদ বিয়ারের দাম বাড়বে পারে।

সুগন্ধি: বিদেশি সুগন্ধি আমদানিতে অগ্রিম আয়কর আরোপ করা হয়েছে।

সিগারেট: সম্পূরক শুল্ক না বাড়ালেও বাজেটে সিগারেটের মূল্যস্তর বাড়ানো হয়। তাই সিগারেটের দাম বাড়বে। তবে অপরিবর্তিত থাকছে নিম্ন ও মধ্যমানের সিগারেট, বিড়ি, জর্দা ও গুলের দাম।

থিম পার্কের রাইড: এমিউজমেন্ট পার্ক স্থাপনের রাইডসামগ্রীর ওপর ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। তাই শিশুদের বিনোদন কেন্দ্র স্থাপনের খরচ বাড়বে।

বিদেশি সবজি: দেশি চাষীদের সুরক্ষা দিতে মাশরুম, বিদেশি গাজর, শালগম জাতীয় সবজি আমদানিতে সম্পূরক শুল্ক ও ভ্যাট বসানো হয়েছে। এছাড়া গাজর, মাশরুম, কাচামরিচ, টমেটো, কমলা, ক্যাপসিকামের ন্যূনতম মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। তাই এসব পণ্যের দাম বাড়তে পারে।

প্রক্রিয়াজাত মাংস: তাজা, শুকনা বা হিমায়িত অবস্থায় আমদানিকৃত মাংসে সম্পূরক শুল্ক ও ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

গাড়ির সুরক্ষা কাঁচ: গাড়ি ও বিমানের সব ধরনের সুরক্ষা কাঁচের আমদানি শুল্ক ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ শতাংশ করা হয়েছে। তাই গাড়ি মালিকদের ভবিষ্যতে বেশি খরচ হতে পারে।

আরও দাম বাড়তে পারে যেসব পণ্যের সেগুলো হচ্ছে শিল্পের লবণ, যানবাহান নিরাপদ রাখার তালাজাতীয় পণ্য, পুনর্ব্যবহারযোগ্য লুব বেস অয়েল, পুনর্ব্যবহারযোগ্য লুব্রিকেন্ট অয়েল, নাট-স্ক্রু (তারকাটা জাতীয় পণ্য), প্যারাফিন, মিনারেল অয়েল, সোডিয়াম সালফেট, আমদানিকৃত রড ও অ্যাঙ্গেল, ধান ও গম ভাঙ্গানোর মেশিন।

শেয়ার করুন