বাইকারদের বিক্ষোভ, মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহনের অনুমতি চেয়ে

মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহনের অনুমতি চেয়ে বিক্ষোভ করছে রাইড শেয়ারিংয়ের নিবন্ধিত চালকরা। তাদের অভিযোগ, গণহারে পুলিশ তাদের জরিমানা করছে এবং মামলা দিচ্ছে।

বুধবার (৭ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে, শান্তিনগরে ও খিলখেতে মোটরসাইকেল চালকরা এ বিক্ষোভ করেন। এতে ব্যাহত হয় স্বাভাবিক যান চলাচল।

বিক্ষোভ থেকে মোটরসাইকেল চালকরা বলেন, সরকারকে দ্রুত রাইড শেয়ারিং সেবা চালু করতে হবে। আমরা মানবেতর জীবন যাপন করছি। আমাদের একমাত্র আয়ের উৎস রাইড শেয়ারিং সার্ভিস। সেটি বন্ধ করে দেওয়ায় আমরা এখন বেকার। রাস্তায় যাত্রী নিয়ে বের হলে পুলিশ মামলা দেয়। দ্রুত রাইড শেয়ারিং সেবা চালু এবং অহেতুক মামলা বন্ধ করতে আমরা সরকারের কাছে আবেদন করছি।

এদিকে, লকডাউনের মধ্যেই দোকানপাট খুলে দিতে বিক্ষোভ করেছে রাজধানীর ফুলবাড়িয়া, বঙ্গবাজার ও গুলিস্তানের দোকান মালিক ও কর্মচারীরা। ব্যবসায়ী ও দোকান কর্মচারীরা দোকান খুলে দেওয়ার দাবিতে গুলিস্তানে সড়ক অবরোধ করেন।

গুলিস্তান সিটি করপোরেশন মার্কেটের জুতার দোকানের মালিক শিপন বলেন, ‘আমার জুতার দোকান, ঈদকে সামনে রেখে দোকানে অনেক মাল উঠিয়েছি, ঋণ করে মাল ওঠাতে হয়েছে। দোকান না খুললে ঋণ পরিশোধ করবো কীভাবে? দোকান ভাড়া দেবো কীভাবে? নিজের পরিবার নিয়ে কীভাবে চলবো? আমাদের তো জমানো কোনও টাকা নেই।’

শেয়ার করুন