দুই নারী জেল হাজতে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করায় রংপুরে

রংপুর ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করায় দুই নারীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন আদালত। রোববার (১৭ জানুয়ারি) বিকেলে আদালতে জামিনের আবেদন করলে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যাল-৩ এর বিচারক মোস্তফা পাভেল রায়হান জামিন নামঞ্জুর করে মিতু আক্তার ও নুরুন্নাহার বেগম নামে দুই নারীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, রংপুর জেলার তারাগঞ্জ উপজেলার সয়ার ডারার পার গ্রামের কাজী সায়েদ আলীর পুত্র কাজী মিজানুর রহমান বাদী হয়ে গত ২০১৮ সালের ৪ জুন তার মেয়ে মিতু আক্তারকে ধর্ষণের অভিযোগে একই গ্রামের খলিল উদ্দিন এর ছেলে মামুনুর রশিদ মামুনসহ তিন জনকে আসামী করে তারাগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন।

উক্ত মামুনুর রশিদ ওরফে মামুনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের ঘটনার সত্যতা না পাওয়ায় এবং ডিএনএ রিপের্টে মিতু আক্তারের গর্ভে মামুনুর রশিদ ওরফে মামুন কর্তৃক ধর্ষণের কোন আলামত না পাওয়ায় তারাগঞ্জ থানার ওসি মামুনুর রশিদ সকল আসামীকে মামলা থেকে অব্যহতি প্রদান করেন এবং ২০০৩ এর ১৭ ধারা মোতাবেক বাদীর বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেওয়ার জন্য আদালতের কাছে সুপারিশ করেন।

ফলে মামুনুর রশিদ ওরফে মামুন উক্ত মামলা থেকে অব্যহতি পাওয়ার পর মিথ্যা মামলা করায় মিজানুর রহমান, মিতু আক্তার ও মোছাঃ নুরুন্নাহার বেগমকে আসামী করে নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুানল-৩ এ একটি মামলা করেন। উক্ত মামলায় আসামী মিজানুর রহমান দীর্ঘ হাজত বাস করার পর জমিন পেলেও আসামী মিতু আক্তার ও মোছাঃ নুরুন্নাহার বেগম রোববার আদালতে জামিনের আবেদন করলে আদালতের বিচারক তাদের জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

শেয়ার করুন