ইতালিতে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আরও বাড়ল

ইতালিতে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির দিকে। তবে নতুন করে এর ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে বাংলাদেশসহ তিন দেশের নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আগামী ৩০ মে পর্যন্ত বাড়িয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এর আগে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা ছিল ১৫ মে পর্যন্ত। ইতালির স্বাস্থ্যমন্ত্রী রোবেরতো স্পেরেন্সা এ সংক্রান্ত অধ্যাদেশে সই করেন।

করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট মোকাবিলায় বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কা থেকে ইতালিতে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো বাড়ানো হলো। ৩০ মে’র পর নিষেধাজ্ঞা শিথিল হবে কিনা তা নতুন করে সিদ্ধান্ত নেবে ইতালির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, ইতালির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গত মাসে প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কার নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হয়। তবে শুধুমাত্র যাদের ইতালির পাসপোর্ট বা নাগরিকত্ব আছে তাদের ক্ষেত্রে ২৯ এপ্রিলের আগে থেকে ইতালিতে একটি নির্দিষ্ট ঠিকানা (রেসিডেন্সি) থাকা সাপেক্ষে নিজ দেশ ফিরতে কোনো বাধা নেই।

এদিকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের যেকোনো দেশ থেকে ইতালিতে প্রবেশের পর ১৪ দিন হোম কোয়ারান্টাইন ব্যবস্থা তুলে নিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। যা রোববার (১৬ মে) থেকে কার্যকর শুরু হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের ভয়ে এর আগেও একবার বাংলাদেশ থেকে ভ্রমণকারীদের জন্য সীমান্ত বন্ধ করেছিল ইতালি। গত বছর যখন করোনার প্রথম ঢেউয়ের ধাক্কায় ইউরোপ টালমাটাল, তখন দীর্ঘদিন দেশটিতে যাত্রীবাহী উড়োজাহাজ চলাচল বন্ধ ছিল।

অবশেষে ৭ জুলাই ভাড়া করা বিশেষ উড়োজাহাজে করে ইতালি যান প্রবাসী বাংলাদেশিরা। সেখানে পৌঁছানোর পর ৭৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

এরপর বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ইতালি। পরে কয়েক দফায় এর মেয়াদ বাড়ায় দেশটি। অবশেষে ১৪ অক্টোবর বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হয়।

শেয়ার করুন