টাঙ্গাইলে ট্রাক উল্টে একই পরিবারের নিহত ৩                       নির্বাচনের আগে বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহারে সতর্ক র‍্যাব: বেনজীর                       শাহজালালে ৭ কেজি স্বর্ণসহ মালয়েশীয় নাগরিক আটক                       রাজধানীর যে সব এলাকায় ১০ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না আজ                       রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩       

রাবির গ্রাজুয়েটদের আশায় এবারও গুড়েবালি

রায়হান:গত বছর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ম সমাবর্তনের তারিখ নির্ধারনের পরও নানা জল্পনা কল্পনার পর সেই প্রতীক্ষার অবসান ঘটার কথা ছিল চলতি মাসের ২৪ তারিখ। কিন্তু সে আশাও এবার গুড়ে বালি। এবারের সমাবর্তনের সভাপতিত্ব করার কথা ছিল শিক্ষামন্ত্রীর। কিন্তু তার শারীরিক অসুস্থতার কারণে আবারও স্থগিত হয়েছে এই সমাবর্তন। 
 
মঙ্গলবার (১৩ মার্চ) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার। তবে সমাবর্তন স্থগিত হওয়ার বিষয়ে খুশি নিবন্ধিত শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি শিক্ষাজীবনের শেষ সার্টিফিকেট রাষ্ট্রপতির হাত থেকে নিব।
 
প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, সমাবর্তনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় চ্যান্সেলর রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সম্মতি চেয়ে চিঠি পাঠায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তারপ্রেক্ষিতে গত ১ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি তাঁর প্রতিনিধি হিসেবে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করার কথা ছিল।
 
এদিকে ১০ম সমাবর্তন স্থগিত হওয়ায় আনন্দিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নিবন্ধিত শিক্ষার্থীরা। এ বিষয়ে জানতে চইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের  ফারসী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী তারেক হোসেন টুটুল বলেন, ‘এটি আমাদের জন্য অনেক আনন্দের সংবাদ। আমরা চাই আচার্যের কাছ থেকে সনদ নিতে। দেশের অন্য বিশ্ববিদ্যালয় যদি রাষ্ট্রপতিকে নিয়ে সমাবর্তন করতে পারে তাহলে দেশের ২য় বৃহত্তম এই বিশ্ববিদ্যালয় পারবে না কেন। আমি চায় আচার্যের উপস্থিতিতে যেন সমাবর্তন হয়। যেহেতু সমাবর্তনের তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে ফলে আচার্যের সম্মতিতে যেন পরবর্তী তারিখ নির্ধারন করা হয়।’
 
ফলিত রসায়ন বিভাগের ২০০৮-০৯ শিক্ষাবর্ষের অনুপ সরাকর বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে ১০ম সমাবর্তনের অপেক্ষায় আছি। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় আচার্য আসার মাধ্যমেই এই দীর্ঘ অপেক্ষা স্বার্থক হবে’। 
 
এ বিষয়য়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার বলেন, ‘সমাবর্তনের পরবর্তী তারিখ যথাসময়ে জানানো হবে।’
 
এর আগে শিক্ষামন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম সমাবর্তনের সভাপতিত্ব করবেন এই বিষয়টি জানার পর সামাজিক যোগাযোগসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ক্ষোভ ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা দাবি তোলে শিক্ষামন্ত্রীর সময় একের পর এক প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটেই চলছে, শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে, তার কাছ থেকে সমার্বতনের সার্টিফিকেট নিতে চাই না। 
 
এদিকে সমাবর্তন স্থগিত করায় প্রশাসনকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী শিক্ষক গ্রুপ (সাদা দল)। মঙ্গলবার দুপুরে সাদা দলের (ভারপ্রাপ্ত) আহবায়ক প্রফেসর ড. মোহা. এনামুল হক স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয় ।
 
বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশকে না মেনে এ সমাবর্তন আয়োজনের চেষ্টা করেছিল বর্তমান প্রশাসন। দেরীতে হলেও সমাবর্তন স্থগিত করায় এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। তবে অচিরেই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অধ্যাদেশকে যথাযথ সম্মান দিয়ে রাষ্টপতি ও আচার্যের উপস্থিতি নিশ্চিত করে সমাবর্তনের নতুন তারিখ ঘোষণা করার দাবি জানান।
 
উল্লেখ্য, এবারের সমাবর্তনে মোট ৬ হাজার ৯ গ্রাজুয়েট রেজিস্ট্রেশন করেছে।


  • ক্রাইমনিউজবিডি.কম

    © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    সম্পাদক ও প্রকাশক:
    মোঃ গোলাম মোস্তফা
    সুইট -১৭, ৫ম তলা, সাহেরা ট্রপিক্যাল সেন্টার,
    ২১৮ ডঃ কুদরত-ই-খোদা রোড,
    নিউ মার্কেট ঢাকা-১২০৯।
    মোবাইল - ০১৫৫৮৫৫৮৫৮৮,
    ই-মেইল : mail-crimenewsbd2013@gmail.com

    এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি
    অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও
    প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

  • গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক

  • সামাজিক মাধ্যম