নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হয়েছে, নাম ‘পেথাই’                       ঐক্যফ্রন্টের বিজয় শোভাযাত্রা, হামলা বন্ধের আহ্বান                       ড. কামাল হোসেনের ওপর হামলা ফৌজদারি অপরাধ : সিইসি                       বিএনপি নেতা মাহাবুব উদ্দিন খোকন গুলিবিদ্ধ                       ৫২টি স্বর্ণের বার জব্দ ওসমানী বিমানবন্দরে       

ঘুষ ছাড়া ঋণ মেলে না ব্যাংক কর্মকর্তাদেরও

অভিযোগ উঠেছে এই ব্যাংকের কর্মকর্তা ও অফিসার সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু সাইদ ম-লের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে টাকা দিলে মিলে যায় লাখ লাখ টাকার ঋণ।তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ওই কর্মকর্তা।
২০১৭ সালের জুলাই মাসে গৃহঋণের জন্য গাইবান্ধা আঞ্চলিক কার্যালয়ে আবেদন করেন ব্যাংকটির সুন্দরগঞ্জ শাখার সিনিয়র কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান।মান্নানের অভিযোগ, আবেদনের পর মাসের পর মাস ব্যাংকের বারান্দায় ঘুরতে হয় তাকে।শেষ পর্যন্ত ব্যাংকের গাইবান্ধা আঞ্চলিক কার্যালয়ের কর্মকর্তা ও অফিসার সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু সাইদ ম-লকে তার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে দু’দফায় টাকা দেয়ার পর ডিসেম্বরে ১০ লাখ টাকা ঋণ পান তিনি।অগ্রণী ব্যাংকের সুন্দরগঞ্জ শাখার সিনিয়র কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান গণমাধ্যমকে বলেন, ৩১ জুলাই আমি আবেদন করেছি। কিন্তু ঘুরাঘুরির কারণে সাঈদ ম-লের অ্যাকাউন্টে টাকা দেয়ার পরই ঋণের টাকা পাই।অভিযোগ আছে, এমন অনিয়মের প্রতিবাদ করলে কর্মকর্তাদের দূর-দূরান্তে বদলি করে দেন অফিসার সমিতির এই নেতা। তবে এসব অভিযোগের সত্যতা নাই বলে দাবি অভিযুক্তের পাশাপাশি অন্য ব্যাংক কর্মকর্তারও।অগ্রণী ব্যাংকের গাইবান্ধা আঞ্চলিক কার্যালয়ের কর্মকর্তা আবু সাইদ ম-ল গণমাধ্যমকে বলেন, আমার অ্যাকাউন্টে যেসব টাকা এসেছে তা ব্যক্তিগত লেনদেনের কারণেই এসেছে। আমি উৎকোচ হিসেবে কোনো টাকা গ্রহণ করিনি।সুন্দরগঞ্জ শাখার কর্মকর্তা শামছুল আলম বলেন, আমরা ছোট চাকরি করি। কারও ওপর কিছু বলতে পারি না।ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কথা বলতে রাজি হননি অগ্রণী ব্যাংক গাইবান্ধা আঞ্চলিক কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক আব্দুল হাকিম।অভিযুক্ত আবু সাইদ ম-ল কর্মচারী হিসেবে যোগ দেয়ার পর ২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর কর্মকর্তা হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে অগ্রণী ব্যাংক গাইবান্ধা আঞ্চলিক কার্যালয়ে যোগদান করেন।


  • ক্রাইমনিউজবিডি.কম

    © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    সম্পাদক ও প্রকাশক:
    মোঃ গোলাম মোস্তফা
    সুইট -১৭, ৫ম তলা, সাহেরা ট্রপিক্যাল সেন্টার,
    ২১৮ ডঃ কুদরত-ই-খোদা রোড,
    নিউ মার্কেট ঢাকা-১২০৯।
    মোবাইল - ০১৫৫৮৫৫৮৫৮৮,
    ই-মেইল : mail-crimenewsbd2013@gmail.com

    এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি
    অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও
    প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

  • গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক

  • সামাজিক মাধ্যম