সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন                       রিজার্ভ চুরি : আরসিবিসির বিরুদ্ধে মামলার পরিকল্পনায় বাংলাদেশ ব্যাংক                       উন্নয়ন টেকসই করতে নির্মল প্রবৃদ্ধিকে গুরুত্ব দিতে হবে: বিশ্বব্যাংক                       নতুন করদাতাদের বেশির ভাগের বয়স ৪০ বছরের নিচে: অর্থমন্ত্রী                       এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের চেয়ারম্যানের পদত্যাগ       

মেয়র আনিসুল হক আর নেই

চিকিৎসকরা তার কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাসযন্ত্র (ভেনটিলেশন যন্ত্র) খুলে নেন। এরপর তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। এ সময় তার স্ত্রী রুবানা হক, ছেলে নাবিদুল হকসহ আত্মীয়-স্বজনরা লন্ডনে উপস্থিত ছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। বৃহস্পতিবার রাতে মেয়রের পারিবারিক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া শোক প্রকাশ করেছেন।পারিবারিক সূত্র জানায়, আগামী শনিবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে আনিসুল হকের মরদেহ ঢাকায় আনা হবে। বিমানবন্দর থেকে মরদেহ তার বাসায় নেয়া হবে।ওই দিন বাদ আসর রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হবে।  এর আগে তার এপিএস মিজানুর রহমান যুগান্তরকে জানান, সোমবার সংক্রমণের কারণে আনিসুল হকের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে আইসিইউতে (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র) স্থানান্তর করা হয়।তার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে বৃহস্পতিবার লাইফ সাপোর্ট দেয়া হয়।  এরপর তাঁকে দীর্ঘদিন আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।একপর্যায়ে মেয়রের শারীরিক পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হওয়ায় তাঁর কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্র খুলে নেয়া হয়। গত মঙ্গলবার মেয়রের পরিবারের একজন সদস্য বলেন, রক্তে সংক্রমণ ধরা পড়ায় তাঁকে আবার আইসিইউতে নেয়া হয়।নাতির জন্ম উপলক্ষে ২৯ জুলাই সপরিবারে আনিসুল হক লন্ডনে যান। সেখানে তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার মস্তিষ্কের রক্তনালিতে প্রদাহজনিত সেরিব্রাল ভাসকুলাইটিস ধরা পড়ে।১৩ আগস্ট লন্ডনের একটি হাসপাতালে ভর্তির পর তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়। অবস্থার উন্নতি হলে ৩১ অক্টোবর তাকে আইসিইউ থেকে রিহ্যাবিলিটেশনে স্থানান্তর করা হয়। এর এক মাসের মধ্যে ফের আইসিইউতে তাকে নেয়া হয়।
মেয়রের অসুস্থতা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা গুঞ্জনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন সম্প্রতি এক বিবৃতিতে জানায়, কোনো কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল মেয়র আনিসুল হক এবং তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা করে চলেছে, যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও বিভ্রান্তিকর।এমনকি তার পরিবারের পক্ষ থেকেও এগুলোকে গুজব হিসেবে উল্লেখ করা হয়। মিডিয়া ব্যক্তিত্ব তৈরি পোশাক ব্যবসায়ী আনিসুল হক ২০১৫ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি এফবিসিসিআই ও বিজিএমইএ'র সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।

  • ক্রাইমনিউজবিডি.কম

    © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    সম্পাদক ও প্রকাশক:
    মোঃ গোলাম মোস্তফা
    সুইট -১৭, ৫ম তলা, সাহেরা ট্রপিক্যাল সেন্টার,
    ২১৮ ডঃ কুদরত-ই-খোদা রোড,
    নিউ মার্কেট ঢাকা-১২০৯।
    মোবাইল - ০১৫৫৮৫৫৮৫৮৮,
    ই-মেইল : mail-crimenewsbd2013@gmail.com

    এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি
    অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও
    প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

  • গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক

  • সামাজিক মাধ্যম