সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন                       রিজার্ভ চুরি : আরসিবিসির বিরুদ্ধে মামলার পরিকল্পনায় বাংলাদেশ ব্যাংক                       উন্নয়ন টেকসই করতে নির্মল প্রবৃদ্ধিকে গুরুত্ব দিতে হবে: বিশ্বব্যাংক                       নতুন করদাতাদের বেশির ভাগের বয়স ৪০ বছরের নিচে: অর্থমন্ত্রী                       এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের চেয়ারম্যানের পদত্যাগ       

রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারপতির পদটি বেশি দিন খালি রাখবেন না

বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং সমপর্যায়ের বিচারকদের প্রশিক্ষণ কোর্সের একটি অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।আনিসুল হক বলেন, প্রধান বিচারপতি নিয়োগের বিষয়টি রাষ্ট্রপতির এখতিয়ারে। তিনি যখন নিয়োগ দেবেন তখনই প্রধান বিচারপতি নিয়োগপ্রাপ্ত হবেন। প্রধান বিচারপতি নিয়োগ দেয়ার আগে অন্যান্য বিচারপতি নিয়োগ দেয়া যাবে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদে বলা আছে অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি প্রধান বিচারপতির অনুরূপ ক্ষমতা পালন করতে পারবেন। অনুরূপ মানে হচ্ছে প্রধান বিচারপতি যা যা করতে পারতেন তিনি (অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি) সেটাই করবেন।মন্ত্রী বলেন, ‘একটু পেছনে তাকালে দেখা যাবে, ১৯৯০ সালের ডিসেম্বরে প্রধান বিচারপতি শাহাবুদ্দিন আহমদ কেয়ারটেকার সরকারের চিফ অ্যাভাইজার হয়েছিলেন। পরে তিনি রাষ্ট্রপতিও হয়েছিলেন। তখন একজন অ্যাক্টিং চিফ জাস্টিস ছিলেন। তিনি অ্যাপয়েনমেন্টও দিয়েছেন। শপথও পড়িয়েছেন। এটা যে নজির নাই তা না। নজির আছে। অনুরূপ কথার উপরে জোর দিতে হবে।’আনিসুল হক বলেন, ‘যিনি এখন অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি তিনি কিন্তু একটা শপথ নিয়েছেন, আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে। অনুরূপ মানে হচ্ছে চিফ জাস্টিসের সব ক্ষমতা তিনি পালন করতে পারবেন। সেখানে কিন্তু কোনো বিভাজন করে দেয়া হয় নাই। তিনি কী করতে পারবেন, কী পারবেন না।প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব যিনি পালন করছেন তিনি শপথ পড়াতে পারবেন কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করার দরকার নাই। আমার মনে হয় সবকিছু দেখা হচ্ছে।অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অধস্তন আদালতের বিচারকদের শৃংখলা বিধির খসড়া সুপ্রিমকোর্টে পাঠানো হয়েছে। সুপ্রিমকোর্ট তা দেখছে। এটি সুপ্রিমকোর্ট থেকে আসা মাত্রই রাষ্ট্রপতির দফতরে পাঠানো হবে।ষোড়শ সংশোধনীর রিভিউয়ের বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, রিভিউ পিটিশন শোনার জন্য আইনে যা যা নিয়ম আছে তার সব পালন করা হবে। রিভিউ পিটিশন কবে নাগাদ দাখিল করা হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটি অ্যাটর্নি জেনারেল সাহেব জানেন।
এর আগে অ্যান্টি-কোরাপশন অ্যাক্ট, ২০০৪; ক্রিমিনাল ল (সংশোধিত), ১৯৫৮ এবং প্রিভেনশন অব কোরাপশন অ্যাক্ট, ১৯৪৭  নিয়ে প্রশিক্ষণার্থী বিচারকদের উদ্দেশে আলোচনা করেন মন্ত্রী।

  • ক্রাইমনিউজবিডি.কম

    © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
    সম্পাদক ও প্রকাশক:
    মোঃ গোলাম মোস্তফা
    সুইট -১৭, ৫ম তলা, সাহেরা ট্রপিক্যাল সেন্টার,
    ২১৮ ডঃ কুদরত-ই-খোদা রোড,
    নিউ মার্কেট ঢাকা-১২০৯।
    মোবাইল - ০১৫৫৮৫৫৮৫৮৮,
    ই-মেইল : mail-crimenewsbd2013@gmail.com

    এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি
    অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও
    প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

  • গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক

  • সামাজিক মাধ্যম